top-ad
১৯শে জুলাই, ২০২৪, ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১
banner
১৯শে জুলাই, ২০২৪
৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১

বিশ্বকাপে পাকিস্তান খেলবে না!

বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণার পরেই আপত্তি জানিয়েছে পাকিস্তান। তিনটি ম্যাচের কেন্দ্র নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পরিচালনা সংস্থা আইসিসির কাছে তারা যে আবেদন করেছিল তা মানেনি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। তাই বিশ্বকাপ খেলতে পাকিস্তান আসবে কি না তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। বল পাকিস্তান সরকারের কোর্টে। তারা অনুমতি না দিলে ভারতে আসবেন না বাবর আজমরা। যদি পাকিস্তান বিশ্বকাপে না খেলে তা হলে কী সিদ্ধান্ত নেবে আইসিসি?


একটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, পাকিস্তান খেলতে না এলে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্ব থেকে আরো একটি দল মূল পর্বে খেলবে। এমনিতেই যোগ্যতা অর্জন পর্ব থেকে প্রথম দুই দল সরাসরি বিশ্বকাপে খেলবে। পাকিস্তান না খেললে পয়েন্ট তালিকায় থাকা তৃতীয় দলও বিশ্বকাপে খেলবে। সে ক্ষেত্রে পাকিস্তানের সূচিই নতুন দলের সূচি হিসেবে ধরা হবে। অর্থাৎ, পাকিস্তানের যে দিন যার বিরুদ্ধে খেলার কথা, সে দিন তার বিরুদ্ধে খেলবে সেই নতুন দল।

এখন জিম্বাবোয়েতে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্ব চলছে। সেখানে সুপার সিক্স পর্বে যে ছ’টি দল উঠেছে তারা হলো : শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবুয়ে, নেদারল্যান্ডস, স্কটল্যান্ড এবং ওমান। এখন যা অবস্থা, তাতে বিশ্বকাপের মূল পর্বে যাওয়ার সুযোগ সব থেকে বেশি জিম্বাবোয়ে ও শ্রীলঙ্কার। কারণ, তাদের কাছে চার পয়েন্ট করে আছে। অন্য দিকে দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পয়েন্ট শূন্য। ফলে বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার সম্ভাবনা তাদের প্রায় নেই বললেই চলে। তবে পাকিস্তান না খেললে একটা সুযোগ আসতে পারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে।

বিশ্বকাপের খসড়া সূচিতে ছিল, ভারতের বিরুদ্ধে আমদাবাদে, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বেঙ্গালুরুতে ও আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে চেন্নাইয়ে খেলতে হবে পাকিস্তানকে। তাতে রাজি ছিলেন না বাবররা। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড দাবি করেছিল, নিরাপত্তার কারণে আহমদাবাদে খেলবে না তারা। চেন্নাইয়ের ঘূর্ণি উইকেটে আফগানিস্তান ও বেঙ্গালুরুর ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলতেও আপত্তি জানায় তারা। চেন্নাই ও বেঙ্গালুরুর ম্যাচ অদল-বদল করার দাবি জানায় তারা। আহমদাবাদের ম্যাচ পারলে কলকাতায় স্থানান্তরিত করার প্রস্তাবও দেয় পাকিস্তান। কিন্তু সেই দাবি মানা হয়নি।

যদিও পাকিস্তানের আরো একটি অনুরোধ মেনে নিয়েছে আইসিসি। প্রস্তুতি ম্যাচে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে খেলতে চায়নি পাকিস্তান। তাদের দাবি ছিল, এর আগে এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে খেলেছে তারা। তাই এশিয়ার বাইরের কোো দেশের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচ দেওয়া হোক তাদের। আইসিসির কাছে অনুরোধ করেছিল পাক বোর্ড। সেই অনুরোধ মেনে নিয়েছে আইসিসি। ২৯ সেপ্টেম্বর নিউ জিল্যান্ড ও ৩ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা বাবরদের। দু’টি ম্যাচই হবে হায়দরাবাদে।
সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

আরো খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

জনপ্রিয় খবর